কুয়াকাটা সৈকতে মৃত ডলফিন!

কুয়াকাটা সৈকতে মৃত ডলফিন!
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৬, ২৩:১২:০৭
কুয়াকাটা সৈকতে মৃত ডলফিন!
কুয়াকাটা প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+
কুয়াকাটা সৈকতে পড়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে ডলফিন জাতীয় জলজ প্রাণীর মৃতদেহ। শিয়াল, কুকুর তাদের খাবার হিসেবে খাচ্ছে মরা এসব প্রাণীর দেহ। আবার এগুলোর দেহ থেকে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ছে গঙ্গামতি সৈকত এলকায়।
 
৪-৫ দিন আগে মরা এ প্রাণীগুলো জোয়ারে ভেসে এসে বালুতে আটকা পড়েছে বলে স্থানীয় জেলেরা ধারণা করছেন। কুয়াকাটা সৈকতের লেবুর চর, ঝাউবন, গঙ্গামতি কাউয়ারচর এলাকার জেলের সাথে কথা বললে তারা জানান, চলতি বর্ষা মৌসুমে অন্তত ৫টি শুশুক, ১২টি বিভিন্ন প্রজাতির বড় বড় মাছ মরে-পচে এভাবে দুর্গন্ধ ছড়িয়েছে।
 
গঙ্গামতি এলাকার খুঁটা জেলে আলামিন জানান, রামনাবাদ চ্যানেলের নদীর সংযোগস্থল ও সমুদ্রের মোহনায় অবাধে বিচরণ করে ডলফিন ও শুশুক। জেলেদের জালে আটকা পড়ে এগুলো মারা যেতে পারে বলে তার ধারণা।
 
দেখতে অনেকটা ডলফিনের মতো হলেও এগুলো সেটেশান নামক প্রজাতির প্রাণী বলে জানান পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ বিভাগের ডিন প্রফেসর ড. সুলতান মাহমুদ।
 
তিনি বলেন, এগুলো তিমি, ডলফিন ও পরপয়েসরা মাছ নয়, এরা সেটেশান নামক প্রাণীগোষ্ঠী। জীবনের পুরো সময়টা পানিতে কাটালেও মানুষের মতো বুদ্ধিমান ও সামাজিক প্রাণী। বাতাস থেকে অক্সিজেন গ্রহণ করে। মায়ের গর্ভে বাচ্চা বেড়ে ওঠে এবং বাচ্চা প্রসব করে। বাচ্চাদের দুধ পান করায় এবং জীবন যাপনে সক্ষম না হওয়া পর্যন্ত লালন পালন করে। জলজ ওই সব স্তন্যপায়ী প্রাণী মানুষের প্রতি যত্নশীল। জেলেদের সঙ্গী হয়ে হাঙরের আক্রমণ থেকে রক্ষা এবং সমুদ্র থেকে মানুষকে উদ্ধার করতে সহায়তা করে থাকে।
 
তিনি বলেন, সেই মানুষের অসচেতনতায় তাদের দিয়ে বিলুপ্তি হচ্ছে ওই সব জলজ স্তন্যপায়ী প্রাণী। এসব সেটেশানরা বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন দ্বারা রক্ষিত। এদের ধরা, ক্রয়-বিক্রয় অথবা মেরে ফেলা আইনত দণ্ডনীয়।
 
তবে এ প্রাণীগুলো ব্যবস্থাপনার জন্য বন বিভাগের কাছে নেই বলে স্বীকার করেছেন গঙ্গামতি বিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাফর উল্লাহ।
 
বিবার্তা/রোকন/কাফী
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১১৯২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2019 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com