চট্টগ্রামের ৩০ গ্রামে ঈদ উদযাপিত হচ্ছে

চট্টগ্রামের ৩০ গ্রামে ঈদ উদযাপিত হচ্ছে
প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৬, ০৮:২৯:২৯
চট্টগ্রামের ৩০ গ্রামে ঈদ উদযাপিত হচ্ছে
সাতকানিয়া প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

চট্টগ্রামের ৩০ গ্রামের কিছু সংখ্যক মানুষ আজ সোমবার পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন করছেন। সাতকানিয়ার মির্জারখীল দরবার শরীফের মুরিদগণ সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে অন্যান্য বছরের মতো এবারও একদিন আগে ঈদ উদযাপন করবেন। ইতিমধ্যে তারা ঈদের নামাজ আদায় ও কোরবানির সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন।

চট্টগ্রাম ছাড়াও দেশের বিভিন্নস্থানে থাকা মির্জারখীল দরবার শরীফের অনেক মুরিদ ঈদের নামাজ আদায় ও কোরবানি দেয়ার লক্ষে রবিবার দরবার শরীফে চলে এসেছেন। আজ সকাল দশ টার সময় মির্জারখীল দরবার শরীফের মাঠে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করবেন।

দরবার শরীফের পীর হযরত মাওলানা মোহাম্মদ আরেফুল হাই এর বড় ছেলে ড. মুফতি মাওলানা মোহাম্মদ মকছুদুর রহমান ঈদের নামাজ পড়াবেন বলে জানিয়েছেন দরবারের মুখপাত্র বজলুল করিম চৌধুরী।

মির্জারখীল দরবার শরীফ সূত্রমতে, সাতকানিয়ার মির্জারখীল, গাটিয়াডেঙ্গা, মাদার্শা চন্দনাইশের কাঞ্চননগর, হারালা, বাইনজুরি, কানাই মাদারি, সাতবাড়িয়া, বরকল, দোহাজারী, জামিরজুরি, বাঁশখালীর কালিপুর, চাম্বল, শেখেরখীল, ডোংরা, ছনুয়া, আনোয়ারার বরুমছড়া, তৈলারদ্বীপ, লোহাগাড়ার পুটিবিলা, কলাউজান, বড়হাতিয়া, এবং পটিয়া, বোয়ালখালী, হাটহাজারী, সন্দ্বীপ, রাউজান, ফটিকছড়ির বিভিন্ন এলাকাসহ মোট ৩০টি গ্রামের কিছু সংখ্যক মানুষ আজ পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন করছেন।

এছাড়া পার্বত্য জেলা বান্দরবানের লামা, আলীকদম, নাইক্ষ্যাংছড়ি, কক্সবাজারের চকরিয়া, টেকনাফ, মহেশখালী, কুতুবদিয়ার বেশ কয়েকটি গ্রামের কিছু লোক একই সাথে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করছেন। মির্জারখীল দরবার শরীফের এসব মুরিদরা কোন কোন গ্রামে পৃথক ভাবে ঈদের নামাজের আয়োজন করবেন।

আবার বেশির ভাগ এলাকার মুরিদগণ সাতকানিয়ার মির্জারখীল দরবার শরীফের মাঠে উপস্থিত হয়ে ঈদের নামাজ পড়বেন। রবিবার বিকেলে দরবার শরীফ এলাকায় সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়- চট্টগ্রাম ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কয়েক শত মুরিদ ঈদের নামাজ আদায় করার জন্য চলে এসেছেন।

মির্জারখীল দরবার শরীফের মুরিদ ও মির্জারখীল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক বজলুল করিম চৌধুরী জানান, মির্জারখীল পুরো গ্রামের মানুষ আজ ঈদুল আজহা পালন করছেন। প্রায় দুই শতাধিক বছর ধরে মির্জারখীল দরবার শরীফের মুরিদরা সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে দেশের অন্যান্য স্থানের একদিন আগে ঈদুল আজহা উদযাপন করেন। একই ভাবে রোজা পালন ও ঈদুল ফিতর উদযাপনও সৌদি আরবের সাথে সঙ্গতি রেখে একদিন আগে হয়ে থাকে।

তিনি আরো জানান, চট্টগ্রাম ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে মির্জারখীল দরবার শরীফের মুরিদ রয়েছে। যেসব এলাকায় ভক্তের সংখ্যা বেশি সেসব এলাকায় তারা নিজেরাই ঈদের নামাজের আয়োজন করেন। আর যেসব এলাকায় মুরিদ কম তারা মির্জারখীল দরবার শরীফে এসে ঈদের নামাজ আদায় করেন। ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রায় শতাধিক মুরিদ দরবার শরীফ এলাকায় চলে এসেছে বলেও জানান।

বিবার্তা/জিয়া
 

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১১৯২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2019 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com