দেশে তথ্যপ্রযুক্তির বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটবে: পলক

দেশে তথ্যপ্রযুক্তির বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটবে: পলক
প্রকাশ : ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬, ১৯:১৮:৪৩
দেশে তথ্যপ্রযুক্তির বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটবে: পলক
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+
তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, আমরা কৃষি ও শিল্পবিপ্লব অনেক আগে দেখেছি। এখন চলছে প্রযুক্তি বিপ্লব। শুধু সঠিক নেতৃত্বের অভাবে আগে বাংলাদেশে এ বিপ্লব ঘটানো সম্ভব হয়নি। কিন্তু দেশ এখন একটি দক্ষ নেতৃত্ব পেয়েছে। বর্তমান সরকারের নেতৃত্বেই আগামী ১০ বছরে দেশে তথ্যপ্রযুক্তির বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসবে।
 
বুধবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) আয়োজিত ‘তথ্য-প্রযুক্তি, নিউ মিডিয়া ও গণমাধ্যম’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। 
 
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আইনের যেসব ধারা সাংঘর্ষিক মনে হবে সেগুলো বাদ দেয়া হবে। ডিজিটাল আইনের কিছু জায়গায় অসামঞ্জস্যতা রয়েছে। আমরা সে বিষয়ে লক্ষ্য করেছি। তবে এটি এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি। বিশেষজ্ঞদের আরো পরামর্শ নিয়ে তারপর এ আইন পাস করা হবে।
 
বিশ্বের অন্যান্য দেশে প্রযুক্তিগত কোনো সমস্যা দেখা দিলে প্রযুক্তি দিয়ে তা মোকাবেলা করা হয়ে থাকে। কিন্তু আমাদের দেশে বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ না করে বিভিন্ন সময়ে কেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ রাখা হয়েছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, জনগণের নিরাপত্তার জন্যই সাময়িকভাবে দেশে এসব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো বন্ধ রাখা হয়েছিল, যা বিশ্বের অন্যান্য দেশেও করা হয়ে থাকে। তবে ভবিষ্যতে  এমন পরিস্থিতিতে বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথা জানান তিনি।
 
অন্যান্য দেশে ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা অল্প থাকলেও সেখানে ফেসবুকের নিজস্ব অফিস রয়েছে। আমাদের দেশে এতো ফেসবুক ব্যবহারকারী থাকলেও এখনো পর্যন্ত কেন ফেসবুকের অফিস হচ্ছে না জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যেই ফেসবুকের নির্বাহীদের বাংলাদেশে তাদের নিজস্ব অফিস খোলার অনুরোধ জানানো হয়েছে। বাংলাদেশে ফেসবুকের অফিস খোলার প্রক্রিয়া নিয়ে গত দুবছর থেকে আলাপ-আলোচনা চলছে। এই ব্যাপারে ফেসবুকও ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে।
 
সেমিনারে ‘তথ্য-প্রযুক্তি, নিউ মিডিয়া ও গণমাধ্যম’ নিয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক অজিত কুমার সরকার।
 
বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেন, প্রযুক্তিতে অনেকটা এগিয়েছি আমরা। তবে এর জন্য ডিজিাটাল আইন অবশ্যই প্রয়োজন। তবে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের অনেক কিছুই দেশে বিদ্যমান অন্যান্য আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। তাই আইনটি নিয়ে আলাপ-আলোচনা ও পর্যালোচনা করে দেখার সুযোগ রয়েছে বলে জানান তিনি।
 
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি জামাল উদ্দীন আহমেদের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরো বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আহমদ রাজু,  সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ জামাল, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম প্রমুখ।
 
বিবার্তা/উজ্জ্বল/রয়েল
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১১৯২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2020 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com