‘কিশোর-তরুণদের বিপথগামিতা থেকে রক্ষা করতে হবে’

‘কিশোর-তরুণদের বিপথগামিতা থেকে রক্ষা করতে হবে’
প্রকাশ : ২৩ জুলাই ২০১৬, ১৯:২৫:০৯
‘কিশোর-তরুণদের বিপথগামিতা থেকে রক্ষা করতে হবে’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+
আমাদের পারিবারিক ও সামাজিক জীবন ক্রমাগত অস্থির হয়ে পড়ছে। প্রাকৃতিক পরিবেশের সাথে সামাজিক পরিবেশের অবক্ষয় হচ্ছে, আমরা সজ্ঞানে বা না জেনে এই পরিবেশ ধ্বংসকে ত্বরান্বিত করছি। তরুণ-কিশোরদের বিপথগামী হওয়ার পিছনে এটাও একটি অন্যতম কারণ বলে মন্তব্য করেছেন পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন-পবাসহ ১৬টি পরিবেশবাদী ও সামাজিক সংগঠন।
 
শনিবার বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক অবস্থান কর্মসূচি ও মানববন্ধনে সংগঠনের নেতারা এসব কথা বলেন।
 
বিপথগামীতা ও সন্ত্রাস মোকাবেলায় সন্তানদের বেড়ে ওঠার সুষ্ঠু সামাজিক পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, দেশের কিশোর-তরুণদের যেখানে স্বাভাবিকভাবে বিকশিত হওয়ার কথা, সেখানে তারা বিপথগামী হচ্ছে। তারা ঝুঁকে পড়ছে সন্ত্রাসবাদের দিকে। ফলে দেশ যেমন ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে, তেমনি ঝরে যাচ্ছে অনেক সম্ভাবনাময় তরুণ প্রাণ। আমাদের কর্তব্য হচ্ছে এই কিশোর-তরুণদের বিপথগামিতা থেকে রক্ষা করা এবং এটাই হবে সন্ত্রাসকে মূলোৎপাটনের মৌলিক কাজ।
 
বক্তারা বলেন, বিশ্বব্যাপী এখন সবচেয়ে বেশি উচ্চারিত শব্দযুগল হচ্ছে ‘সন্ত্রাস’ এবং ‘সন্ত্রাসী হামলা’। গত ১৫ জুলাই ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার ভয়াবহ ফলাফল আমরা বেদনা ও তীব্র ঘৃণার সাথে প্রত্যক্ষ করেছি। বাংলাদেশেও এ ধরনের বর্বর ঘটনার শুরু হয়েছে গত শতাব্দীর শেষ দশক হতে। গত ১ জুলাই ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিসান বেকারিতে এবং ৭ জুলাই ঈদুল ফিতরের দিন কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ার দেশের সর্ববৃহৎ ঈদের জামাতের পাশে সংঘটিত সন্ত্রাসী হামলায় দেশবাসী হতবিহ্বল এবং আতঙ্কিত হয়ে ওঠে। আরো শিউরে ওঠার মতো বিষয় হচ্ছে এ দুটো সন্ত্রাসী হামলায় অংশ নেয়া সন্ত্রাসীদের মধ্যে যারা নিহত হয়েছে তারা সবাই তরুণ।
 
বক্তরা আরো বলেন, বিপথগামী এই তরুণদের আমরা কীভাবে বিপথগামিতা থেকে ফেরাবো? ব্যক্তি জীবন থেকে রাষ্ট্রজীবন পর্যন্ত সদাচারী হতে হবে। সমাজ ও রাষ্ট্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা প্রয়োজন। সর্ব পর্যায়ে শিক্ষা হবে আনন্দময় ও প্রকৃতিসম্মত। তাদের জন্য বিনোদনের পর্যাপ্ত আয়োজন রাখতে হবে। খেলার পর্যাপ্ত মাঠ, পার্ক রাখতে হবে। প্রকৃতির বিন্যাসের সাথে সামঞ্জস্য জীবনধারা গড়ে তুলতে হবে। যেসব কারণে শিশুদের মধ্যে হতাশা, ক্ষোভ ও ক্রোধ তৈরি হয়, সে কারণগুলো দূর করতে উদ্যোগ নিতে হবে। সর্বোপরি শিশু-কিশোর তরুণদের সামনে মানবকল্যাণের স্বপ্ন তুলে ধরে সেই পথে তাদের নিরন্তর ডেকে যেতে হবে। তাহলেই আমাদের কিশোর তরুণরা বিপথগামী হবে না।
 
পবা’র সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো. আবদুস সোবহানের সভাপতিত্বে অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন- নাসফের সভাপতি ও পবা’র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান ময়না, মার্শাল আর্ট ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আতিক মোরশেদ, নির্বাহী সদস্য তাসনীম নাঈমা প্রমুখ।
 
বিবার্তা/বিপ্লব/রয়েল
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১১৯২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2019 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com