রোজা কার জন্য ফরজ?

রোজা কার জন্য ফরজ?
প্রকাশ : ২৬ জুন ২০১৬, ১৩:৪৭:১৭
রোজা কার জন্য ফরজ?
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+
রোজা ফার্সি শব্দ। আমরা আরবী শব্দ থেকে বলছি সিয়াম অর্থ হচ্ছে রোজা। সিয়াম শব্দটি এসেছে সাওম থেকে যার অর্থ বিরত থাকা। পারিভাষিক অর্থে সুবহে সাদিক থেকে সুর্যাস্ত না হওয়া পর্যন্ত সমস্তপ্রকার খাদ্যদ্রব্য, পানিয়দ্রব্য থেকে বিরত থাকা ।
 
রোজা কার জন্য ফরজ?: রোজা কাদের উপরে ফরজ সে বিষয়ে আলোচনা করছি। রোজা ৮ শ্রেণী মানুষের ওপর ফরজ।
 
১. মুসলমান হওয়া। মুসলিম ব্যক্তির জন্য রোজা রাখা ফরজ। রোজা কোন অমুসলিমের জন্য ফরজ নয়।
 
২. বালেগ হওয়া। নাবালগের ওপর রোজা ফরজ নয়, অর্থাৎ ১২ বছর বয়সের কম বয়স হলে রোজা ফরজ হবেনা।
 
৩. সুস্থব্যক্তি হওয়া। শারীরিকভাবে অসুস্থ ব্যক্তির জন্য রোজা রাখার নিয়ম নাই। তবে সাধারণ অসুখ বিসুখ হলে যদি সে রোজা রাখার উপযোগী হয় তবে সে রোজা রাখতে পারবে।
 
৪.সুস্থ মস্তিস্কের অধিকারী হওয়া। পাগলের ওপর রোজা ফরজ নয়।
 
৫.স্বাধীন হওয়া। পরাধীন নয় এমন ব্যক্তি হওয়া।
 
৬.সজ্ঞান হওয়া। অর্থাৎ যিনি রোজা রাখবেন তিনি নিজ জ্ঞানে বা স্বেচ্ছায় আল্লাহর হুকুম পালন করবেন।
 
৭.মুকিম হওয়া। অর্থাৎ স্তায়ীবাসিন্দা হওয়া। মুসাফিরের ওপর রোজা ফরজের ব্যপারে একটু ভিন্নতা আছে। যেমন কষ্টসাধ্য ভ্রমন হলে পরবর্তীতে রোজা আদায়ের বিধান আছে। আমি মনে করি বর্তমানে সফর অনেক আরামের সাথে করা যায় তাই সফর অবস্থায় একমাত্র কাহিল হয়ে না পড়লে রোজা রাখা উচিৎ।
 
৮.তাহীরা অর্থাৎ পবিত্রতা: হায়েজ-নেফাস মুক্ত হতে হবে।
 
শেষ কথা: অনেকদিন আগে পড়েছিলাম প্রায় ১২ বছর আগে। প্রয়োজনীয় বইপত্র সংগ্রহে না থাকায় লেখাটা সংক্ষিপ্ত আকারে দিতে হচ্ছে।
আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমাদের রোজাসমুহকে কবুল করুন।আমীন
 
বিবার্তা/জিয়া
 
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১১৯২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2019 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com