জিন্দা পার্কের অনাবিল মুগ্ধতা

জিন্দা পার্কের অনাবিল মুগ্ধতা
প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০১৬, ০৮:৩৫:১২
জিন্দা পার্কের অনাবিল মুগ্ধতা
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+
রূপগঞ্জের পূর্বাচল উপশহরের জিন্দা গ্রামে বিশাল এলাকার উপর গড়ে তোলা হয়েছে জিন্দা নামের এই পার্কটি। অপস নামে একটি সামাজিক সংগঠনের অর্থায়নে এ পার্কটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। টিলা আর লেকবেষ্টিত এ পার্কের ভেতরে  আছে দ্বি-পুকুর। লেকে নৌকায় চড়ে ভ্রমণের সুযোগ। 
 
পার্কের ভেতরেই রয়েছে মার্কেট সেখানে সব ধরনের কেনাকাটা করতে পারে দর্শনার্থীরা। আছে লাইব্রেবি, ক্যান্টিন, প্রাণীজগত। পার্কের ৫০ ভাগ জুড়ে আছে লেক। লেকের পাড়ে ফুলের বাগানে নিরিবিরি চুটিয়ে আড্ডা দেবার মত জায়গা রয়েছে। এখানকার লাভ লেক প্রেমিকপ্রেমিকাদের জন্য আকর্ষণীয় স্থান। 
 
পুরো পার্কে পুকুর লেক ছাড়া রয়েছে ঘন সবুজ অরণ্যেঘেরা ছোট বড় টিলা। পার্কে আছে বাংলো, রেস্টুরেন্ট, স্লিপার, দোলনা। আছে সবুজ ঘাষে ঢাকা শিশুদের খেলার মাঠ। লেকময় ঘুরে বেড়ানোর জন্য ১০ টি নৌকা রয়েছে। আছে চিকিৎসার জন্য ফ্রি ক্লিনিক। 
জিন্দা পার্কের অনাবিল মুগ্ধতা
নিরাপত্তা ও সেবার জন্য রয়েছে একঝাঁক তরুণ তরুণী। যারা সর্বক্ষণ দর্শনার্থীদের সেবায় নিয়োজিত। শুটিং ও পিকনিকের এক অনন্য স্থান জিন্দা পার্ক। রূপগঞ্জের জিন্দা গ্রামের ৫ প্রতিভাবান কিশোর এক যুগ আগে জিন্দা গ্রামকে আদর্শ গ্রাম হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষে অপস নামে এক সেবামূলক সামাজিক সমিতি চালু করে। 
 
এই কিশোররা স্বপ্ন দেখেনি স্বর্ণকমল বানানোর; স্বপ্ন দেখেনি বিদেশে পাড়ি জমানোর। তারা স্বপ্ন দেখেছে হতদরিদ্র মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের। তাদের স্বপ্ন ছিল একটাই অজোগাঁ জিন্দাকে আদর্শ মডেল গ্রাম হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা। তাদের সে স্বপ্ন আজ সত্যি হয়েছে। জিন্দা আজ রূপগঞ্জের মডেল গ্রাম হিসেবেস্বীকৃতি পেয়েছে। পাশাপাশি জিন্দা পার্কের কারণে জিন্দার সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে সারা দেশে।
 
এছাড়া যেতে পারেন ইউসুফগঞ্জ উপশহর এলাকায়। বিশাল এলাকা জুড়ে ছোট ছোট টিলা, সমতল ভূমি, শালবন, কাঠাল বাগান। সব মিলিয়ে কি বিচিত্র এখানকার রূপ। প্রাকৃতিক এ সৌন্দর্যে নিঃসন্দেহে আপনি অভিভূত হবেন। মনে হবে অসংখ্য বোটানিক্যাল গার্ডেনের জন্ম যেন এ এলাকায়। 
 
আর তারাব পৌরসভার নোয়াপাড়ায় রযেছে আগেকার দিনের রাজাবাদশা, জমিদার ও সওদাগরদের মতো প্রায় ১৫টি বজরা ও ময়ূরপঙ্খি নৌকা। এগুলো দিয়ে শান্ত শীতলক্ষা নদীতে দিনভর ভ্রমণ করতে পারবেন। 
 
যেতে পারেন কাঞ্চনের মশারি পল্লী কিংবা নোয়াপাড়ার জামদানি পল্লীতে। এখানকার কারিগরদের তৈরি কাজ আপনাকে মুগ্ধ করবেই। সব মিলিয়ে এই গরমে ১ দিনের জন্য সময় করে বেরিয়ে পড়তে পারেন রূপগঞ্জের উদ্দেশ্যে। রূপগঞ্জের রূপ আপনাকে সত্যিই মুগ্ধ করবে। 
 
বিবার্তা/জিয়া
 
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১১৯২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2017 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com