বিভক্ত হচ্ছে ঢাকা মহানগর বিএনপি

বিভক্ত হচ্ছে ঢাকা মহানগর বিএনপি
প্রকাশ : ২৬ মে ২০১৬, ১৯:২৭:০৫
বিভক্ত হচ্ছে ঢাকা মহানগর বিএনপি
জাহিদ হোসেন বিপ্লব
প্রিন্ট অ-অ+
অবশেষে ঢাকা মহানগর বিএনপিকে দু’ভাগে বিভক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দলটি। নেতৃত্বের বিকাশ ও সংগঠনকে শক্তিশালী করতেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। ঢাকা মহানগর উত্তর এবং দক্ষিণের ওই নতুন কমিটিতে নবীন-প্রবীণের সমন্বয় থাকবে বলেও জানিয়েছেন দলের নেতারা।
 
এদিকে, দুই ভাগ হচ্ছে মহানগর বিএনপি- এমন খবরে নতুন কমিটির গুরুত্বপূর্ণ পদ পেতে তদবির-লবিং শুরু করেছেন নেতারা। দলের একটি সূত্র জানায়, মহানগর বিএনপি দুই ভাগ হলে হাই-প্রোফাইল নেতাদের বাদ দিয়ে অপেক্ষাকৃত তরুণ এবং মহানগর রাজনীতিতে অভিজ্ঞ নেতাদের নগরের শীর্ষ নেতৃত্বে আনা হতে পারে।
 
এর আগে দুই দফা ঢাকা মহানগরীর দুই প্রভাবশালী নেতা মির্জা আব্বাস ও সাদেক হোসেন খোকার নেতৃত্বের কমিটি আন্দোলন জমাতে পারেনি। তাদের উপর বিভিন্ন সময় ক্ষুব্ধ মনোভাবও দেখান দলের চেয়ারপারসন। তাছাড়া সারাদেশের নেতাকর্মীদের সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হন মহানগরের দুই শীর্ষনেতা। সেই ব্যর্থতা থেকে বের হতে এবার নগরের দায়িত্ব দেয়া হবে অপেক্ষকৃত তরুণদের হাতে।
 
২০১৪ সালের ১৮ জুলাই বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে আহ্বায়ক ও স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে সদস্য সচিব করে ৫২ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়।
 
প্রথম দফা আন্দোলনে ব্যর্থতার পর আব্বাস-সোহেল কমিটিকে ঘিরে তৃণমূল নেতাকর্মীদের প্রত্যাশা ছিল আকাশচুম্বি। নতুন কমিটির নেতৃত্বে ঢাকা মহানগরে তুমুল আন্দোলনে সরকার পতন হবে, সেই বিশ্বাস ধারন করলেও তাদের সেই স্বপ্নভঙ্গ হয়।
 
আব্বাস-সোহেলের নেতৃত্বে আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হলেও খোকা-সালামের পথেই তারা পা বাড়ান। বর্তমান কমিটি গঠনের পর দায়িত্বশীল নেতারা রাজধানীর ৪৯টি থানা ও প্রায় ১০০টি ওয়ার্ড কমিটির একটিও সম্পন্ন করতে পারেননি।
 
শুরুর দিকে এসব থানা ও ওয়ার্ডে সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি গঠন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে ১৫টি সাব-কমিটিও গঠন করা হয়। কিন্তু এসব কমিটির কোনো কার্যক্রম তখন থেকেই দৃশ্যমান ছিল না। যতটুকু ছিল তা নিয়েও ওঠে বিতর্ক। আন্দোলন শুরুর পরপরই আত্মগোপনে চলে যান মির্জা আব্বাস, সদস্য সচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেলসহ সিনিয়র নেতারা। ফলে আন্দোলন পুরোপুরি ব্যর্থ হয়।
 
পরে দলের শীর্ষ নেতাদের পাশাপাশি বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবীরা সংগঠনকে গতিশীল করতে ঢাকা মহানগরকে দুইভাগে ভাগ করার পরামর্শ দেন। বিএনপি চেয়ারপারসনও একে ইতিবাচক হিসেবে নেন। আর দলের নীতিনির্ধারণী ফোরামের বৈঠকে মহানগর কমিটিকে বিভক্ত করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়।
 
দলীয় সূত্রে জানা গেছে, দুই ভাগের কমিটিতে সাবেক আহ্বায়ক সাদেক হোসেন খোকা, বর্তমান আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস থাকছেন না- এটা অনেকটা নিশ্চিত। তবে এই দুই নেতার বলয়ের বাইরে নেতৃত্ব যাওয়ার সম্ভাবনাও কম। এর পক্ষে-বিপক্ষে মতামত থাকলেও পক্ষেই জোরালো বক্তব্য রয়েছে।
 
নেতাকর্মীরা বলছেন, মির্জা আব্বাস-সাদেক হোসেন খোকা দীর্ঘদিন ধরে মহানগরের নেতৃত্ব দিয়েছেন। গোটা মহানগর জুড়ে তাদের সমর্থক রয়েছে। সে কারণে নতুন নেতৃত্ব তাদের বলয়মুক্ত করার পরিকল্পনা ঠিক হবে না। এই দুই শীর্ষ নেতার অভিজ্ঞতা ও পরামর্শ কাজে লাগাতে পারলে দল উপকৃত হবে বলে নেতাকর্মীদের মত।
 
দলীয় সূত্রের খবর এবং নেতাকর্মীদের আলাপে ঢাকা উত্তরের সভাপতি হিসেবে সাবেক কমিশনার এমএ কাইয়ুমের নাম আলোচনায় রয়েছে। আব্বাস ও খোকা দুজনের সঙ্গেই কাইয়ুমের ভালো সম্পর্ক রয়েছে। উত্তরে সাধারণ সম্পাদক পদে সাবেক কমিশনার আহসান উল্লাহ হাসানের নাম শোনা যাচ্ছে। তবে সাবেক মেয়রপ্রার্থী ও বিএনপি নেতা আব্দুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাবিথ আউয়ালের কথাও আলোচনায় রয়েছে।
 
অন্যদিকে দক্ষিণের সভাপতি হতে আগ্রহী অবিভক্ত ঢাকা মহনগর কমিটির সাবেক সদস্য সচিব আবদুস সালাম। দীর্ঘদিন ধরে মহানগরে রাজনীতি করায় সব থানা-ওয়ার্ড পর্যায়ে তার সমর্থক আছে। এছাড়া মহানগরের রাজনীতিতে আছে তার দীর্ঘ অভিজ্ঞতা।
 
অন্যদিকে এক নেতার এক পদের নীতির কারণে হাবিব উন নবী খান সোহেল ঢাকা মহানগরের নেতৃত্বে থাকছেন না। কারণ ইতোমধ্যে তাকে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব করা হয়েছে। দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক পদে নবীউল্লাহ নবী ও সালাহউদ্দিন আহমেদের নাম শোনা যাচ্ছে। প্রথমে শীর্ষ ৫ নেতার নাম ঘোষণা করা হতে পারে বলে শোনা গেছে।
 
এ প্রসঙ্গে বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম বিবার্তাকে বলেন, আমাদের দেশনেত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যখন যেখানে আমাকে যে দায়িত্ব দেবেন আমি নিষ্ঠার সাথে তা পালন করব।
 
নগর বিএনপি দু’ভাগে বিভক্ত হলে দক্ষিণের নেতৃত্বে আসার ইচ্ছে আছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি কয়েকযুগ ধরে মহানগর রাজনীতির সাথে জড়িত। নগর বিএনপির প্রতিটি ইউনিট, ওয়ার্ড এবং থানার প্রতিটি নেতাকর্মীর সাথে আমার আত্মার সম্পর্ক। তবু আমি বলব নেত্রী আমাকে যেখানে যোগ্য মনে করবেন আমি সেখানেই কাজ করব।
 
বিবার্তা/ বিপ্লব/মৌসুমী/কাফী
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১১৯২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2018 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com