মাছ উৎপাদন বাড়াতে সরকারের ২০ প্রকল্প

মাছ উৎপাদন বাড়াতে সরকারের ২০ প্রকল্প
প্রকাশ : ৩১ আগস্ট ২০১৬, ০৭:৫৭:১৯
মাছ উৎপাদন বাড়াতে সরকারের ২০ প্রকল্প
ফারজানা ফারিজ
প্রিন্ট অ-অ+
২০২১ সালের মধ্যে ৪৫.৫২ মেট্রিক টন মাছ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার। এ লক্ষ্যে বড় মাপের ২০টি প্রকল্পে ৩২৪ কোটি ৪৫ লাখ টাকা বিনিয়োগ করা হবে। চলতি অর্থবছরেই (২০১৬-১৭) এসব প্রকল্পে এ অর্থ খরচ করবে সরকার। 
 
মৎস্য এবং পশুসম্পদ মন্ত্রণালয়ের এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, মৎস্যসম্পদের উন্নয়নে আরো বেশি মানুষকে যুক্ত করতে এসব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এসব প্রকল্পে দেশে মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে মানুষের প্রোটিনের চাহিদা পূরণে সাহায্য করবে।  
 
প্রকল্পগুলো হলো বাংলাদেশ ম্যারিন ফিসারিজ ক্যাপাসিটি বিল্ডিং, গোপালগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ ও সিরাজগঞ্জে মৎস্য ডিপ্লোমা ইনন্সিটিটিউট প্রতিষ্ঠা, মাছের পোনা ও শুটকির গুণগত মান উন্নয়নে মাছের অবকাঠামোর পরিবর্তন ও উন্নয়ন, জেলেদের তালিকা তৈরি এবং পরিচয়পত্র বিতরণ, মাছের সমন্বিত উৎপাদন, মিঠা পানির চিংড়ি চাষ সম্প্রসারণ (দ্বিতীয় ধাপে), পার্বত্য চট্টগ্রামে মাছের চাষ উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ (তৃতীয় ধাপে), মুক্ত পানিতে ‘বিল নার্সারি’ প্রতিষ্ঠা। 
মাছ উৎপাদন বাড়াতে সরকারের ২০ প্রকল্প
এছাড়া নিমগাছিতে সমাজভিত্তিক মাছ চাষ, রংপুর বিভাগে মাছ চাষে উন্নয়ন, মাছের ব্রুড ব্যাংক প্রতিষ্ঠা, নির্বাচিত কিছু এলাকায় কুঁচে ও কাঁকড়ার চাষ ও গবেষণাগার প্রতিষ্ঠা, বৃহত্তর যশোর জেলায় মাছ চাষের উন্নয়ন, জলবায়ু সহনীয় প্রতিবেশ ও জীবিকা নিশ্চিতকরণ, খাদ্য নিরাপত্তার জন্য জলদ প্রাণীর উৎপাদন বৃদ্ধি এবং ভালো মানের মাছের পোনা ও খাদ্য উৎপানের মাধ্যমে গ্রাম্য অর্থনীতির উন্নয়ন, ইউনিয়ন পর্যায়ে মাছ চাষের প্রযুক্তি সম্প্রসারণ (দ্বিতীয় ধাপে), বৃহত্তর কুমিল্লায় মৎস্য সম্পদের উন্নয়ন, জলাভূমিতে মাছ চাষ বৃদ্ধি এবং উপকূলীয় এলাকায় মৎস্য সম্পদের উন্নয়ন। 
 
খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (ফাও) একটি প্রতিবেদনে দেখা যায়, বিশ্বে মাছ উৎপাদনে বর্তমানে বাংলাদেশের অবস্থান চতুর্থ। বর্তমানে প্রতি বছর প্রায় ৩৫ লাখ মেট্রিন টন মাছ উৎপাদন করছে বাংলাদেশ। তিন দশক আগে যা ছিল মাত্র ৭.৫০ মেট্রিক টন। বর্তমানে দেশের প্রায় ১১ শতাংশ মানুষ প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষভাবে মৎস্য চাষের সাথে জড়িত। মৎস্যসম্পদ বিভাগের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, প্রতি বছর ৫০ কোটি টাকা মূল্যের মাছ উৎপাদন করে বাংলাদেশ। সূত্র: ইউএনবি।
 
বিবার্তা/ফারিজ/জিয়া
 
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১১৯২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2019 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com