রিজার্ভ চুরি: কাল তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হচ্ছে না

রিজার্ভ চুরি: কাল তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হচ্ছে না
প্রকাশ : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৬, ১৪:৪৭:২৩
রিজার্ভ চুরি: কাল তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হচ্ছে না
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+
বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হওয়ার কথা থাকলেও তা প্রকাশে আরও সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।
 
বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
 
তিনি বলেন, এখনই এই তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হচ্ছে না। এটি প্রকাশে বেশ সময় লাগবে।
 
এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ২২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। গত রবিবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানিয়েছিলেন।
 
তিনি বলেছিলেন, আগামী ২২ সেপ্টেম্বর অনলাইনে এই তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া যাবে। ২৪ সেপ্টেম্বর আমি দেশের বাইরে যাব। তার আগেই ২২ সেপ্টেম্বর তদন্ত কমিটির রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে। উল্লেখ্য, তিন সপ্তাহের সফরে ২৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন অর্থমন্ত্রী। এই সফরে তিনি নেদারল্যান্ডস ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফের বার্ষিক সভায় অংশ নেবেন। সফর শেষে ১২ অক্টোবর তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।
 
উল্লেখ্য, গত ফেব্রুয়ারির শুরুতে সুইফট মেসেজিং সিস্টেমের মাধ্যমে ৩৫টি ভুয়া বার্তা পাঠিয়ে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের একশ কোটি ডলার সরিয়ে ফেলার চেষ্টা হয়। এর মধ্যে পাঁচটি বার্তার মাধ্যমে আট কোটি ১০ লাখ ডলার যায় ফিলিপিন্সের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকে। অন্য একটি বার্তার মাধ্যমে শ্রীলঙ্কার একটি এনজিওর নামে পাঠানো হয় ২০ লাখ ডলার।
 
শ্রীলঙ্কায় পাঠানো অর্থ ওই অ্যাকাউন্টে জমা হওয়া শেষ পর্যন্ত আটকানো গেলেও ফিলিপিন্সের ব্যাংকে যাওয়া অর্থের বেশিরভাগই স্থানীয় মুদ্রায় বদলে ক্যাসিনোর জুয়ার টেবিল ঘুরিয়ে তা তুলে নেয়া হয়। সে সময় ফিলিপিন্সের একটি পত্রিকার খবরের মাধ্যমে বিষয়টি প্রকাশ পায়।
 
এই ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের তত্কালীন গভর্নর ড. আতিউর রহমান পদত্যাগ করেন। ১৫ মার্চ সরকারের পক্ষ থেকে গঠন করা হয় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি, যার প্রধান করা হয় সাবেক গভর্নর ড. ফরাসউদ্দিনকে। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন বুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ এবং ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অতিরিক্ত সচিব গকুল চাঁদ দাস।
 
গত ২০ এপ্রিল অর্থমন্ত্রীর কাছে অন্তর্বর্তীকালীন প্রতিবেদন জমা দেয় এই কমিটি। এরপর ৩০ মে দেয়া হয় পুরো প্রতিবেদন। এর পর অর্থমন্ত্রী একাধিকবার তদন্ত প্রতিবেদন জনসমক্ষে প্রকাশের কথা বললেও সেটি আর প্রকাশ করা হয়নি।
 
বিবার্তা/আমিন/রয়েল/জিয়া
 
সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (২য় তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১১৯২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2019 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com